1. tanvirinternational2727@gmail.com : NewsDesk :
শনিবার, ২৪ জুলাই ২০২১, ১১:০২ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
নড়াগাতীতে দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ আটক ৬ দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার নৌক ভ্রমনে ইউএনও লকডাউনের বিধিনিষেধ উপেক্ষা করে। “মরিচ্যা চেকপোষ্টে কোটি টাকার ইয়াবা উদ্ধারঃ ইজিবাইকসহ ড্রাইভার আটক।” জীবননগরে লকডাউন বাস্তবায়নে কঠোর অবস্থানে উপজেলা প্রশাসন সোনারগাঁ উপজেলা প্রশাসনের কঠোর অবস্থানের মধ্য দিয়ে শেষ হলো লগডাউনের দ্বিতীয় দিন। মাধবপুরে করোনা ঝুঁকি নিয়ে কাজ করছে রাবার শ্রমিকরা ! সাংবিধানিক কারণে সিলেট-৩ উপনির্বাচন পেছানোর সুযোগ নেই: সিইসি রাজারহাটের বুড়িরহাট স্পারটির ফের ধ্বস ২৪ ঘন্টায় পুনঃসংস্কার করলেন কুড়িগ্রাম পাউবো। করেনার উপসর্গে নোয়াখালী কোভিড হাসপাতালে ২ জনের মৃত্যু আত্রাইয়ে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে দ‌ই তৈরি করায় জরিমানা

খাগড়াছড়িতে চুরি ও হত্যার দায়ের আটক-১

  • সময় : বুধবার, ২১ জুলাই, ২০২১


খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি :


চুরি এবং হত্যা মামলার আসামী আটক করলো বাংলাদেশ সেনাবাহিনী (খাগড়াছড়ি সদর জোন)
বুধবার (২১ জুলাই ২০২১) ০০৪৫ ঘটিকায় খাগড়াছড়ি সদর উপজেলার নারিকেল বাগান (হোটেল মাউন্ট ইন) এলাকায় মেরিজ টোবাকো কোম্পানীর গোডাউনে চুরির সময় উক্ত কোম্পানীর কর্মচারী এল্টু চাকমা (২৬), মাইসছড়ি, মহালছড়ি, খাগড়াছড়িকে মোঃ সাজু মিয়া (২১), উত্তর গঞ্জপাড়া, সদর, খাগড়াছড়ি গুরুতরভাবে আহত করে এবং আশঙ্কাজনক অবস্থায় ফেলে পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে আহত ব্যক্তিকে খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালে নেয়া হয় এবং কর্তব্যরত চিকিৎসক এল্টু চাকমা (২৬), মাইসছড়ি, মহালছড়ি, খাগড়াছড়িকে মৃত বলে ঘোষনা করেন।
এ বিষয়ে সংবাদ প্রাপ্ত হওয়া মাত্রই (রাতে) খাগড়াছড়ি সদর জোন তাৎক্ষণিক তল্লাশী অভিযান পরিচালনা করে। পরবর্তীতে গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে ২১ জুলাই ২০২১ তারিখ ১১৩০ ঘটিকায় (ঘটনার প্রায় ১১ ঘন্টার মধ্যে) আসামী মোঃ সাজু মিয়া (২১), উত্তর গঞ্জপাড়া, সদর, খাগড়াছড়িকে পলাতক অবস্থায় ঠাকুরছড়া নতুন বাজার, সদর, খাগড়াছড়ি হতে আটক করে খাগড়াছড়ি সদর জোন (বাংলাদেশ সেনাবাহিনী)। জানা যায়, আটককৃত ব্যক্তি ইতোপূর্বে চুরি এবং মাদকের মামলায় জেল হাজতে ছিল এবং বর্তমান জামিনে রয়েছে।
এ বিষয়ে খাগড়াছড়ি সদর জোন কমান্ডার লেঃ কর্ণেল তৌফিকুল বারী এর সাথে যোগযোগ করা হলে তিনি বলেন, চুরি, ডাকাতী এবং সশস্ত্র সদস্যদের তথ্য সংগ্রহের লক্ষ্যে খাগড়াছড়ি সদর জোন গোয়েন্দা তৎপরতা এবং আভিযানিক কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে। এছাড়াও বাংলাদেশ সেনাবাহিনী পার্বত্য অঞ্চলে দীর্ঘদিন যাবৎ সকল সম্প্রদায়ের মধ্যে সম্প্রীতির বন্ধনকে দৃঢ় রাখতে অত্যন্ত দক্ষতার সাথে দায়িত্ব পালন করে আসছে। ভবিষ্যতে এরূপ কার্যক্রমে জড়িত ব্যক্তিদের বিষয়ে আরো কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের অন্যান্য খবর
©বাংলাদেশবুলেটিন২৪